শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ১১:১৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
প্রথম জয় তুললো মুস্তাফিজদের রাজস্থান রয়্যালস সিটি স্ক্যান শেষে বাসায় ফিরেছেন খালেদা জিয়া বাবা-মায়ের কবরের পাশে সমাহিত হলেন মতিন খসরু করোনা টিকার দ্বিতীয় ডোজ নিয়েছেন ৯ লক্ষাধিক মানুষ শনিবার থেকে পাঁচ দেশে চালু হচ্ছে বিশেষ ফ্লাইট ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সব সূচক ছিল উর্ধমুখী লকডাউনেও ন্যায্যমূল্যে চাল ও আটা বিক্রয় কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে লকডাউনে মোংলা বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক কঠোর নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও বেড়েছে জনসমাগম ও যান চলাচল আইজিপির দায়িত্ব পালনের এক বছর পূর্তি আঘাত হানতে পারে কালবৈশাখী ঝড় দেশে করোনায় মৃত্যু ১০ হাজার ছাড়িয়েছে করোনায় ৫৪% গৃহকর্মী ও ১৯% নারী পোশাক শ্রমিক কাজ হারিয়েছে: সিপিডি ফ্রী অক্সিজেন সিলিন্ডার সাপোর্ট দিবে পুলিশ করোনার হানা দেশের গ্ল্যামার জগতে; দীর্ঘ হচ্ছে তালিকা বিএনপি জনগণ ও পুলিশকে প্রতিপক্ষ বানিয়েছে: ওবায়দুল কাদের ‘লকডাউনের নামে আওয়ামী লীগ ক্র্যাকডাউনে নেমেছে’ পবিত্র মসজিদ আল আকসায় আজান বন্ধ করায় জর্ডানের নিন্দা ব্রাজিলের করোনা ধরনটি আরও বিপজ্জনক হতে পারে: গবেষণা ধর্মীয় উপাসনালয়সহ ঘরবাড়ি লুটপাট করছে মিয়ানমার সেনারা

এক মাসে সড়কে ঝরলো ৫১৩ প্রাণ !

এক মাসে সড়কে ঝরলো ৫১৩ প্রাণ !

চলতি বছরের মার্চে দেশে ৪০৯টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৫১৩ জন নিহত এবং ৫৯৮ জন আহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ৬৩ জন শিশু এবং ৭৮ জন নারী। রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের তথ্যে উঠে এসেছে দেশের সড়ক দুর্ঘটনার এ চিত্র।
আজ সোমবার রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক সাইদুর রহমান স্বাক্ষরিত এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। এতে দেখা গেছে, ১৩৮টি মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় নিহত ১৪৭ জন, যা মোট নিহতের ২৮ দশমিক ৬৫ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনার হার ৩৩ দশমিক ৭৪ শতাংশ। দুর্ঘটনায় ১৩৬ জন পথচারী নিহত হয়েছেন, যা মোট নিহতের ২৬ দশমিক ৫১ শতাংশ। যানবাহনের চালক ও সহকারী নিহত হয়েছেন ৮২ জন, যা মোট নিহতের ১৫ দশমিক ৯৮ শতাংশ।
একই সময়ে দু’টি নৌ-দুর্ঘটনায় দু’জন নিহত এবং আটজন আহত হয়েছেন। ১৫টি রেলপথ দুর্ঘটনায় ১৯ জন নিহত এবং ছয়জন আহত হয়েছেন।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশন সাতটি জাতীয় দৈনিক, পাঁচটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এবং ইলেক্ট্রনিক গণমাধ্যমের তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে। তাদের প্রতিবেদনে আরো দেখা গেছে, ঢাকা বিভাগে সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। ১১৯টি দুর্ঘটনায় নিহত ১৩৬ জন। সবচেয়ে কম দুর্ঘটনার চিত্র বরিশাল বিভাগে। ২১টি দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ২৬ জন।
একক জেলা হিসেবে চট্টগ্রাম জেলায় সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। ১৭টি দুর্ঘটনায় ৩৩ জন নিহত। সবচেয়ে কম বাগেরহাট জেলায়। মার্চ মাসে একটি দুর্ঘটনা ঘটলেও কেউ হতাহত হয়নি।
দেশে সড়ক দুর্ঘটনার প্রধান কারণ হিসেবে ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন, বেপরোয়া গতি, চালকদের বেপরোয়া মানসিকতা, অদক্ষতা ও শারীরিক-মানসিক অসুস্থতা, বেতন ও কর্মঘণ্টা নির্দিষ্ট না থাকা, মহাসড়কে স্বল্পগতির যানবাহন চলাচল, তরুণ ও যুবদের বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালানো, জনসাধারণের মধ্যে ট্রাফিক আইন না জানা ও না মানার প্রবণতা, দুর্বল ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, বিআরটিএ’র সক্ষমতার ঘাটতি ও গণপরিবহন খাতে চাঁদাবাজিকে উল্লেখ করেছে রোড সেফটি ফাউন্ডেশন।
এর প্রেক্ষিতে রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের সুপারিশগুলো হলো-
দক্ষ চালক তৈরির উদ্যোগ বৃদ্ধি করতে হবে, চালকের বেতন ও কর্মঘণ্টা নির্দিষ্ট করতে হবে, বিআরটিএ’র সক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে, পরিবহনের মালিক-শ্রমিক, যাত্রী ও পথচারীদের প্রতি ট্রাফিক আইনের বাধাহীন প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে, মহাসড়কে স্বল্পগতির যানবাহন চলাচল বন্ধ করে এগুলোর জন্য আলাদা পার্শ্বরাস্তা (সার্ভিস লেন) তৈরি করতে হবে, পর্যায়ক্রমে সব মহাসড়কে রোড ডিভাইডার নির্মাণ করতে হবে, গণপরিবহনে চাঁদাবাজি বন্ধ করতে হবে, রেল ও নৌ-পথ সংস্কার ও সম্প্রসারণ করে সড়ক পথের ওপর চাপ কমাতে হবে, টেকসই পরিবহন কৌশল প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করতে হবে এবং ‘সড়ক পরিবহন আইন-২০১৮’ বাধাহীনভাবে বাস্তবায়ন করতে হবে।
মার্চে আগের মাসেও সড়ক দুর্ঘটনার হার কম ছিলো না। গত ফেব্রুয়ারি মাসে ৪০৬টি দুর্ঘটনায় ৫১৭ জন নিহত হয়েছিলেন। প্রতিদিন নিহতের গড় ১৮ দশমিক ৪৬ জন। মার্চ মাসে প্রতিদিন নিহত হয়েছেন গড়ে ১৬ দশমিক ৫৪ জন। এই হিসাবে মার্চ মাসে প্রাণহানি কমেছে ১০ দশমিক ৪০ শতাংশ। যদিও প্রাণহানি কমার এই হার কোনো টেকসই উন্নতি সূচক নির্দেশ করছে না।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

করোনার সর্বশেষ খবর

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৭১১,৭৭৯
সুস্থ
৬০২,৯০৮
মৃত্যু
১০,১৮২
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
১৩৬,০৬৯,৩১৩
সুস্থ
৭৭,৫৮৫,১৮৬
মৃত্যু
২,৯৩৭,২৯২
%d bloggers like this: