শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০৭:৫৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
লঙ্কানদের দুর্দান্ত জয় করোনায় মুখে খাওয়া ওষুধের অনুমোদন দিল যুক্তরাজ্য অনিয়ম হলে ভোট বন্ধ, প্রার্থিতা বাতিল: সিইসি বাংলাদেশে ব্রিটিশ বিনিয়োগকারীদের প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণ অপরিশোধিত তেল আমদানি করছে সরকার ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ১৫৭ জন হাসপাতালে ভর্তি ২০২২ সালে সাধারণ রোগে পরিণত হবে করোনা করোনায় আরো ৭ মৃত্যু, শনাক্ত ২৪৭ লজ্জার হারে বিশ্বকাপ শেষ করলো বাংলাদেশ ফের ‘প্লেয়ার অব দ্য মান্থ’ পুরস্কারে মনোনীত সাকিব দুর্দান্ত পাকিস্তান, তবুও তাদের চ্যাম্পিয়ন হওয়া নিয়ে শঙ্কা জবাবদিহিতা নেই বলেই তেলের দাম বাড়িয়েছে সরকার: ফখরুল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শাস্তি বন্ধে হাইকোর্টের পরামর্শ ১২ কেজি এলপি গ্যাসের দাম বেড়ে ১৩১৩ টাকা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় নৌবাহিনীকে আরও দক্ষ হতে হবে : রাষ্ট্রপতি তারেক রহমানের দেশে আসার সৎ সাহস নেই : সেতুমন্ত্রী এক হাজারেরও বেশি পারমাণবিক বোমা বানাবে চীন: পেন্টাগন দেশে মাথাপিছু আয় বেড়েছে ৩২৭ ডলার রাষ্ট্রপতি শিল্প উন্নয়ন পুরস্কার পেল ১৯ প্রতিষ্ঠান জ্বালানি তেলের দাম না কমালে সারাদেশে পণ্য পরিবহন বন্ধ ঘোষণা

এশিয়ার সবচেয়ে সুখী দেশের তালিকায় যে ১০ দেশ

এশিয়ার সবচেয়ে সুখী দেশের তালিকায় যে ১০ দেশ

মাথাপিছু জিডিপি, প্রয়োজনের সময় সামাজিক সহায়তা, সরকারি দুর্নীতির অনুপস্থিতি, সুস্থ জীবন প্রত্যাশা, জীবন বেছে নেওয়ার স্বাধীনতা, অন্যদের প্রতি উদারতা ও দানশীলতা—এই ছয়টি মূল পরিবর্তনশীল এককে মানুষ সুখী কি না, সেই মূল্যায়ন করে তৈরি করা হয় হ্যাপিনেস ইনডেক্স। এই তালিকায় মে মাসের হিসাব পর্যন্ত এশিয়ার সবচেয়ে সুখী দেশ হলো তাইওয়ান।

গত বছর করোনা মহামরির প্রভাবে পর্যুদস্ত হয়েছিল পৃথিবীর প্রায় সব দেশ। এশিয়ায় করোনা মোকাবিলায় সফলতা দেখিয়েছে চীন ও দক্ষিণ কোরিয়া। সেই হিসেবে জাপান অনেকটাই ব্যর্থ। এই করোনা মহামানির তীব্রতার মধ্যেও কোন দেশ সুখে রয়েছে, তা খুঁজতে গেলে দেখা যায়, এশিয়ার সবচেয়ে সুখী দেশ তাইওয়ান। জাতিসংঘের সৌজন্যে ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট নামের এক বার্ষিক প্রতিবেদনের এমন তথ্য নিয়ে এ কথা জানায় গ্লোবাল ফাইন্যান্স ম্যাগাজিন।

হ্যাপিনেস ইনডেস্কে এশিয়ার সবচেয়ে সুখী ১০ দেশের নাম-

তাইওয়ান
এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে সুখী দেশের তালিকার প্রথমেই রয়েছে তাইওয়ানের নাম। মাথাপিছু জিডিপি, আয়ু ও সামাজিক সহায়তার ক্ষেত্রে তাইওয়ান বরাবারই সফলতার স্বাক্ষর রেখেছে। তাইওয়ান এমন একটি সমাজ যেখানে ব্যক্তি সুখের চেয়ে সবার একত্রে ভালো থাকাকে বেশি মূল্যায়ন করা হয়। তাইওয়ান শুরু থেকেই করোনা মোকাবিলায় ভালো করেছে। এমনকি করোনা বিধিনিষেধের মতো পদক্ষেপও নিতে হয়নি তাদের। আর এই সাফল্যে এ বছর এশিয়ার জন্য ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেসের তালিকায় শীর্ষে তাইওয়ান। বিশ্বের মধ্যে তাইওয়ানের অবস্থান ২৪। গত বছরের চেয়ে এগিয়েছে এক ধাপ।

সিঙ্গাপুর
হ্যাপিনেস ইনডেক্সে এশিয়ার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ সুখী দেশের স্থান নিয়েছে সিঙ্গাপুর। যদিও বৈশ্বিক তালিকায় দেশটির স্থান ৩২ নম্বরে। সিঙ্গাপুর বিশ্বের অতিধনী দেশগুলোর একটি। আয়, প্রাতিষ্ঠানিক আস্থা ও স্বাস্থ্যকর জীবন প্রত্যাশার ক্ষেত্রে সিঙ্গাপুরের অবস্থান খুবই ভালো। তবে অন্যদের প্রতি উদারতা ও সামাজিক সমর্থনের শক্তির ক্ষেত্রে দেশটির অবস্থান অতটা ভালো নয়। তাই বৈশ্বিকভাবে সুখী দেশের তালিকায় প্রথম দিকে নেই দেশটি।

উজবেকিস্তান
মধ্য এশিয়ার সবচেয়ে জনবহুল অথচ সবচেয়ে সুখী দেশগুলোর মধ্যে একটি উজবেকিস্তান। জাতিসংঘের প্রতিবেদন অনুসারে, হ্যাপিনেস ইনডেক্সে বেশ ভালো অবস্থানে গেছে দেশটি। এর ৩ কোটি ৪০ লাখ মানুষ জীবনের ওপর তাদের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে খুশি। সামাজিক সহায়তা ও অন্যদের প্রতি উদারতা নিয়ে তারা বেশ সুখী। শুধু তা–ই নয়, উজবেকিস্তান দিন দিন অর্থনৈতিকভাবেও ধনী হয়ে উঠছে। প্রাকৃতিক সম্পদে সমৃদ্ধ, উজবেকিস্তান অর্থনীতিতে বৈচিত্র্য আনতে ও বিদেশি বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করার জন্য বড় আকারের সংস্কার করেছে।

কাজাখস্তান
মাত্র দুই বছরের ব্যবধানে করোনাভাইরাস মহামারির মধ্যে কাজাখস্তান ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্টে ১৫ ধাপ এগিয়ে এসেছে। প্রায় দুই কোটি জনসংখ্যার এ দেশে ১২০টির বেশি জাতিগত গোষ্ঠী ও জাতীয়তার বাসস্থান। এমনকি দেশটি তাদের নিজস্ব কোভিড-১৯ টিকা কাজভ্যাক তৈরি করতে সক্ষম হয়েছিল, যা ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের দ্বিতীয় পর্যায়ে ৯৬ শতাংশ কার্যকর বলে দাবি করা হয়। এটি বিশ্বের বৃহত্তম স্থলবেষ্টিত দেশ।

থাইল্যান্ড
গত বছর সরকারবিরোধী বিক্ষোভ, দেশব্যাপী তীব্র খরা ও পর্যটন খাতের করোনা মহামারির প্রভাব বিপর্যস্ত করে থাইল্যান্ডকে। তবে এত কিছুর পরও দেশটি এশিয়ার পঞ্চম শীর্ষ সুখী দেশ। বৈশ্বিক হ্যাপিনেস সূচকেও বিশ্বে ৫৪তম অবস্থান ধরে রেখেছে। দীর্ঘায়ু, জীবন উপভোগ করার স্বাধীনতা, আন্তব্যক্তিক সম্পর্ক— এই ক্ষেত্রগুলোতে থাইল্যান্ড করোনা মহামারির মধ্যেও ভালো করেছে।

জাপান
করোনা মহামারির তীব্র আঘাত মোকাবিলায় খুব বেশি সাফল্য দেখাতে পারেনি জাপান। কিছু সাংবিধানিক সীমাবদ্ধতার কারণে সরকার করোনা বিধিনিষেধ ঠিকমতো বাস্তবায়ন করতে পারেনি। আইনের পরবর্তী সংশোধনের কারণে ‘জরুরি অবস্থা’ ঘোষণা করা হলেও কিন্তু অধিকাংশ বিধিনিষেধ বাধ্যতামূলক করা হয়নি। ফলে ২০২০ সালে দেশটির অর্থনীতি ৪ দশমিক ৮ শতাংশ সংকুচিত হয়। তবে এত কিছুর পরও এশিয়ার সুখী দেশের তালিকায় ৬ নম্বরে দেশটি।

ফিলিপাইনস
মাথাপিছু জিডিপির পরিসংখ্যানে ফিলিপাইন ইন্দোনেশিয়া, চীন বা মালয়েশিয়ার মতো দেশগুলোর চেয়ে অনেক পিছিয়ে। অথচ ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস ইনডেক্সে দেশটি তাদের সবার থেকে অনেক এগিয়ে। বর্তমানে সুখী দেশের তালিকায় বৈশ্বিক র্যাঙ্কিংয়ে দেশটির অবস্থান ৬১তম, এর আগে যা ছিল ৫২তম।

দক্ষিণ কোরিয়া
গত বছর করোনা মহামারি মোকাবিলায় উল্লেখযোগ্যভাবে সফল হয়েছিল দক্ষিণ কোরিয়া। এছাড়া কখনো সম্পূর্ণ করোনা বিধিনিষেধে যেতে হয়নি দেশটিকে। করোনার তৃতীয় ঢেউ আঘাত করলেও মোকাবিলায় সফল হয়েছিল তারা। মূলত এর আগে ২০১৫ সালে সার্স মহামারির থেকে তারা যে শিক্ষা পেয়েছিল, এবার তা–ই কাজে লাগিয়েছে দেশটি। করোনার একদম শুরু থেকে পদক্ষেপ নিয়েছিল দেশটি।

কিরগিজস্তান
মঙ্গোলিয়ার মতো কিরগিজস্তান এমন একটি দেশ, যারা হ্যাপিনেস ইনডেক্সে কয়েক বছর ধরে এগোচ্ছে। ২০১৭ সালে ৯৮তম, ২০১৮ সালে ৯২তম, ২০১৯ সালে ৮৬তম, ২০২০ সালে ৭৪তম। এ বছর মে পর্যন্ত এর অবস্থান ৬৭তম। ভ্রমণের জন্য নিরাপদ এ দেশের জনসংখ্যা ৬৫ লাখ। কখনো কখনো কঠোর হলেও শান্ত ও সমন্বিত জীবন যাপন করে তারা। সামাজিক সহায়তা ও স্বাস্থ্যকর জীবন প্রত্যাশায় সবচেয়ে ভালো স্কোর দেশটির।

মঙ্গোলিয়া
গত ৫ বছরে মঙ্গোলিয়া সুখী দেশের তালিকায় ৩০ ধাপ এগিয়ে এখন ৭০তম। গত তিন দশকে দেশটি তার জিডিপি তিন গুণ করেছে, দারিদ্র্যের হার কমিয়েছে। সেই সঙ্গে ১২ বছরের একটি বাধ্যতামূলক শিক্ষাব্যবস্থার মাধ্যমে তার বর্তমান অর্থনৈতিক সাফল্যের ভিত্তিকে শক্তিশালী করেছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

করোনার সর্বশেষ খবর

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
১,৫৭৫,৫৭৯
সুস্থ
১,৫৪০,০১৮
মৃত্যু
২৭,৯৭৫
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
২৬০,২৮১,৮৪৭
সুস্থ
মৃত্যু
৫,১৮৫,৭০২
%d bloggers like this: