রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:৪০ অপরাহ্ন

পানির নিচে দেড় লাখ হেক্টর জমির ফসল

পানির নিচে দেড় লাখ হেক্টর জমির ফসল

দু’দফা বন্যায় হুমকির মুখে দেশের কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা। পানির নিচে ডুবে আছে দেড় লাখ হেক্টর ফসলি জমি। বীজতলা নষ্ট হওয়ায় শঙ্কা বেড়েছে আমন আবাদ নিয়ে। ক্ষুদ্র কৃষকরা বলছে, নতুন করে বীজ বা চারা কেনার সামর্থ্য নেই তাদের। এঅবস্থায় ক্ষতিগ্রস্ত প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র কৃষকদের বিনামূল্যে আমনের চারা এবং শাকসবজি বীজ দিবে কৃষি মন্ত্রণালয়।

ধামরাইয়ের কৃষক দেলোয়ার হোসেন ১০ হাজার টাকা খরচ করে ৭০ শতাংশ জমিতে ধান লাগিয়েছেন। শীষ বের হওয়ার আগমুহুত্বে বন্যায় তলিয়ে যায় পুরো ক্ষেত। দীর্ঘদিন পানির নিচে থাকায় পচে গেছে প্রতিটি শীষ। দেলোয়ার বলছেন, পুরো টাকাই ভেসে গেছে বানের জলে।

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বলছে, দেশে দ্বিতীয় ধাপের বন্যায় ধান, সবজি, ভুট্টা’সহ ১৪টি ফসলের প্রায় দেড় লাখ হেক্টর জমি প্লাবিত হয়েছে। এরমধ্যে আউশ ও আমন ধানের জমিই এক লাখ হেক্টর। এর বাইরেও প্রায় ৯ হাজার ৪৮৫ হেক্টর জমির আমন বীজতলা নষ্ট হয়েছে।

একজন কৃষক বলেন, ‘বন্যা যাওয়ার পরে আমি যে বীজ কিনুম সেই টাকা আর নেই।’

মাঠ পর্যায় ঘুরে দেখা গেছে, আবাদ ঠিক রাখতে বাড়ির আঙ্গিনা কিংবা পরিত্যক্ত উচু জায়গায় নতুনভাবে বীজতলা তৈরি করেছেন গৃহস্থ কৃষক। তবে বন্যার পানি দ্রুত না নামলে সব প্রস্ততি ভেস্তে যাবে।

কৃষি মন্ত্রণালয় বলছে, বন্যার পরই কৃষকদের মাঝে আমনের চারা এবং সবজি বীজ বিতরণ শুরু হবে।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নাসিরুজ্জামান বলেন, ‘আড়াইশো মেট্রিকটন আমন বীজের চারা করেছি। শুধুমাত্র ব্রহ্মপুত্র অববাহিকায় দেয়ার জন্য।’

দ্বিতীয় ধাপের বন্যার আর্থিক ক্ষতি নিরুপণে কাজ করছে কৃষি মন্ত্রণালয়। ২৫ জুন থেকে ৯ জুলাই পর্যন্ত প্রথম দফা বন্যায় কৃষকের ক্ষতি হয়েছে প্রায় সাড়ে ৩শ’ কোটি টাকা।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

.

করোনার সর্বশেষ খবর

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
৩৫৭,৮৭৩
সুস্থ
২৬৮,৭৭৭
মৃত্যু
৫,১২৯
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
৩২,৮৩৪,৩৯১
সুস্থ
২২,৭১১,২১৩
মৃত্যু
৯৯৪,০৭৮